24 C
Bangladesh
Wednesday, December 7, 2022
Home নির্বাচিত জন্ম থেকে কাশির কারণ ও ভালোমন্দ

জন্ম থেকে কাশির কারণ ও ভালোমন্দ

10জন্মের পর থেকে প্রতিটি মানুষেরই কাশি হয় ৷ আর কাশি উঠলে শরীরের পেট, কোমর, পিঠে অসংখ্য পেশিকে কাজ করতে হয়৷ তাছাড়া কাশি বেশি দিন থাকলে জটিল অবস্থা হতে পারে৷ তবে কাশির ভালো দিকও রয়েছে৷

কাশির কারণ কী?

ঠান্ডা লেগে গলা খুশ খুশ করলে কাশি হয়৷ অথবা গলা দিয়ে কিছু ঢোকালে কাশি হতে পারে৷ এছাড়া নিঃশ্বাসে ধোঁয়া ঢুকে জীবাণু ছাড়ালে বা হঠাৎ করে কিছু গিলে ফেললেও কাশি হতে পারে৷ আসলে নানা কারণে আমরা কাশি৷ গলায় বাতাসের গতি আটকে গিয়ে কাশতে থাকি৷ অবিশ্বাস্য হলেও, কাশির বেগ ঘণ্টায় ১০০০ কিলোমিটারও কিন্তু হতে পারে৷

কাশির ভালো দিক

কাশি শুধু কষ্টই দেয় না, এর কিছু ভালো দিকও রয়েছে৷ যেমন কাশি স্বাসনালী ও ফুসফুসকে পরিষ্কার করে, করে রক্ষা৷ এমনকি কাশি হলে তার জীবাণু শ্বাসনালীতেই থেকে যায়, তাই তা সহজে শরীরের অন্য কোথাও ছড়াতে পারে না৷

কাশি যখন ক্ষতিকর

শুকনো কাশি ভালো নয়, কারণ তা শ্বাসনালী পরিষ্কার করতে পারে না৷ কাশি বেশি শুকনো হলে তা স্বাসনালীর উদ্দীপনার কারণে ক্ষতি করতে পারে৷ তাই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, বেশি কাশি উঠলে মুখের সামনে হালকা করে হাত বা টিস্যু পেপার ধরে মুখটা খানিকটা ফুলিয়ে একটু সামনের দিক করে বসে কাশলে, কষ্ট কম হবে৷

এর চিকিৎসা কী?

কাশির চিকিৎসা নির্ভর করে কাশির ধরণের ওপর৷ তবে কাশি অল্প হলে কাশির লজেন্স চুষে খেতে পারেন৷ দু’সপ্তাহের পরও যদি কাশি ভালো না হয়, তাহলে কিন্তু ডাক্তারের কাছে যাওয়া আবশ্যক৷

শুষ্ক কাশির ক্ষেত্রে কী করণীয়?

কাশির যদি শুধু সাধারণ ঠান্ডা লাগার সাথে সম্পর্ক হয়, তাহলে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করলেই অনেক সময় তা সেরে যায়৷ ঘরের তাপমাত্রা আদ্র হলেও কাশিতে কিছুটা উপকার হয়৷ লবণ পানির ‘ইনহেলার’-ও কাজে দেয় কাশিতে৷ তাছাড়া কাশির কারণে রাতের ঘুমের সমস্যা হলে সাধারণ কাশির সিরাপই যথেষ্ট৷

যাদের কাশি কমানোর ওষুধ নেওয়া উচিত নয়

দুই বছরের কম বয়সি শিশু কিংবা হবু মায়েদের কাশির ওষুধ না খাওয়াই উচিত৷ আর একান্তই খেতে হলে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত৷

কাশির জীবাণু

ঠান্ডা লাগার সাথে যখন কাশি হয়, তখন কাশতে গিয়ে কাশি গিলে ফেলবেন না৷ বরং যতটা সম্ভব বের করতে হবে৷ কারণ এর মাধ্যমে জীবাণু যেমন বেরিয়ে যাবে, তেমনি তাড়াতাড়ি সুস্থ হওয়া সম্ভাবনাও বাড়বে৷ এই পরামর্শ জার্মান নাক কান গলা বিশেষজ্ঞ ইএনটি স্পেশ্যালিস্ট ডা. ভিচমানের৷

সব কাশি এক নয়

ঘনঘন কাশি অ্যালার্জি বা ঠান্ডা লাগার কারণে হতে পারে না৷ এমনটা তরল কাশি জমে যাওয়ার ফলে হতে পারে৷ মুশকিল হলো, তরল কাশি জমে হৃদযন্ত্রকে আক্রান্ত করতে পারে৷ বিশেষ করে তরল কাশির রং যদি গোলাপি হয়, তাহলে অবশ্যই সতর্ক হওয়া প্রয়োজন৷ প্রয়োজন অবিলম্বে ডাক্তার দেখানো৷

সচেতনতা

যাদের কাশি হয়েছে, তাদের কাছ থেকে খানিকটা দূরে থাকাই ভালো৷ হ্যান্ডশেক, জড়িয়ে ধরা কিংবা তাদের ব্যবহার করা তোয়ালে বা টিস্যুপেপার ব্যবহার না করাই উচিত৷ তাই খুব বেশি কাশি হলে বাসে যাতায়াত বা খুব বেশি লোকজন যেখানে, সেখানে না যাওয়াই শ্রেয়৷

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

কর জালিয়াতির মামলায় ট্রাম্প অর্গানাইজেশন দোষী সাব্যস্ত 

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরিবারের দ’ুটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে কর জালিয়াতির মামলায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। নিউইয়র্ক জুরি মঙ্গলবার ‘দ্য ট্রাম্প অর্গানাইজেশন ও...

রূপকথার ট্রাইব্রেকারে স্পেনকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে মরক্কো

এ যেন রূপকথার গল্প। সাবেক বিশ চ্যাম্পিয়ন স্পেনকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এবং এবারের বিশকাপের আফ্রিকার প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে...

রামোসের হ্যাট্টিকে ১৬ বছর পর কোয়াটার্র ফাইনালে রোনালদোর পতুর্গাল

স্ট্রাইকার গনসালো রামোসের হ্যাট্টিকে  সুইজারল্যান্ডকে বড়  ব্যাবধানে  হারিয়ে কাতার বিশকাপের কোয়াটার্র ফাইনাল নিশ্চিত করেছে  পতুর্গাল। টুর্নামেন্টে আজ শেষ ষোলোর...

বাংলাদেশ এখন আদর্শ বিনিয়োগের কেন্দ্র : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে বিনিয়োগের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে আদর্শ স্থান হিসেবে বর্ণনা করে পারস্পরিক সুবিধার্থে বৃহত্তর বিদেশী ও স্থানীয় বিনিয়োগ কামনা করেছেন।তিনি...

Recent Comments