20 C
Bangladesh
Wednesday, December 8, 2021
Home জাতীয় হাজীগঞ্জে সহিংসতার বিষয়ে যা বলছেন নিহত ছাত্রর পরিবার আর কর্তৃপক্ষ

হাজীগঞ্জে সহিংসতার বিষয়ে যা বলছেন নিহত ছাত্রর পরিবার আর কর্তৃপক্ষ

বাংলাদেশে কোরআন অবমাননার কথিত অভিযোগে চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জে বিক্ষোভ থেকে সহিংসতার সময় পুলিশের গুলিতে নিহতদের পরিবারগুলো এসব হত্যার বিচার চাইছে।

তবে তারা নিজেরা কোন মামলা করেনি।

তারা বলছেন, পরিবারের সদস্য হারিয়ে তারা অসহায় হয়ে পড়েছেন।

গত ১৩ই অক্টোবর কুমিল্লায় একটি পূজামণ্ডপে কোরআন পাওয়া যায়। সেদিনই রাতে এর প্রতিবাদে হাজীগঞ্জে বিক্ষোভ ও সহিংসতা হয় এবং পুলিশ তাতে গুলি চালায়।

সেদিনের বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে পাঁচজন নিহত হয়। আহত হয় বেশ কয়েকজন।

দশম শ্রেণির ছাত্র আল আমিন

নিহতদের মধ্যে দশম শ্রেণির ছাত্র আল আমিনের বাড়ি হাজীগঞ্জের রায়চোঁ নামের গ্রামে।

উপজেলা শহর হাজীগঞ্জের প্রধান সড়ক থেকে তিন কিলোমিটার দূরে সেই গ্রামে তার বাড়িতে আমি যাই। কথা হয় নিহত আল আমিনের মা সায়রা বেগমের সাথে।

তিনি বলেছেন, তার ছেলে স্কুলের পরীক্ষার কিছু কাগজপত্র ফটোকপি করার জন্য উপজেলা শহরে গেলে সেখানে সে পুলিশের গুলিতে মারা যায়।

সায়রা বেগমের বক্তব্য হচ্ছে, তার ছেলে সেই বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেয়নি।

সায়রা বেগম তার ছোট ছেলে আল আমিনকে হারিয়ে মুষড়ে পড়েছেন। তিনি বলেছেন, পুরো পরিবারটিই অসহায় হয়ে পড়েছে।

তিনি দাবি করেছেন, তার ছেলে কোন রাজনৈতিক দলের সাথে যুক্ত ছিল না।

সায়রা বেগম বলেছেন, ছেলের মৃত্যুর ঘটনার ব্যাপারে তারা কোন মামলা করবেন না। তবে তারা এর বিচার চান।

“আমরা অসহায় অবস্থায় আছি। আমরা মামলা করবো না। আমরা প্রশাসনের কাছে বিচার চাই এবং আমরা আল্লাহর কাছে এর বিচার চাই,” বলেন সায়রা বেগম।


নবম শ্রেণির ছাত্র ইয়াসিন

হাজীগঞ্জে সেদিনের ঘটনায় গুলিতে নিহত আরেকজন নবম শ্রেণির ছাত্র ইয়াসিন হোসেন হৃদয়।

তার বাবা ফজলুল হক কুয়েত থেকে তিন মাস আগে দেশে ফিরেছেন।

দুই সন্তানের মধ্যে বড় ছেলের নিহত হওয়ার পর তিনি এখন বিদেশে যাওয়ার সিদ্ধান্ত বাদ দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, “আমার ছেলে ঘরেই ছিল। তার সমবয়সী একজন এসে তাকে ডেকে নিয়ে যায়। সে যাওয়ার সময় আমাকে বলেছে, কুমিল্লায় কোরআন অবমাননার বিরুদ্ধে সে মিছিলে যাচ্ছে।”

“সে যাওয়ার ঘণ্টা দেড়েক পড়েই আমি ছেলের মৃত্যুর খবর পাই। আমি এ ব্যাপারে মামলা করবো না। আমি কী আর বলবো-আর কাকেই বা দোষ দেবো!”

পূজার মধ্যে মন্দিরে হামলা

হাজীগঞ্জের প্রধান রাস্তা বিশ্বরোডে বিক্ষোভকারীরা গত ১৩ই অক্টোবর সন্ধ্যার পর প্রথম জড়ো হয়ে মিছিল বের করে।

এই মিছিল থেকে অল্প দূরত্বেই প্রথম যে মন্দিরে ইট পাথর ছুঁড়ে আক্রমণ করা হয়েছিল, সেখানেই হামলাকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের একপর্যায়ে পুলিশ গুলি চালালে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

সেই মন্দিরের একজন পুরোহিত অয়ন চক্রবর্তী আক্রমণের বর্ণনা দিতে গিয়ে বলেছেন, আকস্মিকভাবে হামলাটি চালানো হয়েছিল।

তিনি বলেন, “মন্দিরে পূজা চলছিল। তাতে নারী শিশুসহ অনেক মানুষ ছিল। এর মধ্যেই একটা মিছিল এসে ইট পাথর ছুঁড়ে আক্রমণ করে।”

সেদিনের বিক্ষোভ এবং সহিংসতার সময় পুলিশের গুলিতে পাঁচজন নিহত হয়। আহতও হয়েছে বেশ কয়েকজন।

পুলিশের গুলি নিয়ে প্রশ্ন

পুলিশ কেন সরাসরি গুলি চালিয়েছিল- এই প্রশ্ন তুলেছে নিহতদের পরিবারগুলো।

এই প্রশ্ন নিয়ে কথা হয় চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মিলন মাহমুদের সাথে।

তিনি বলেছেন, পরিস্থিতির ভয়াবহতায় পুলিশ বাধ্য হয়ে গুলি চালিয়েছিল।

“দুই হাজারেরও বেশি লোকের একটা মিছিল এসে মন্দিরে আক্রমণ করেছিল। সেই মন্দিরের ভেতরের মানুষকে রক্ষার জন্য সেদিন পুলিশ বাধ্য হয়ে গুলি চালিয়েছে।

”তা নাহলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতো,” বলেন পুলিশ সুপার মি. মাহমুদ।

পরিকল্পিত হামলার অভিযোগ

হাজীগঞ্জে বিক্ষোভ মিছিলের আগে তার পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকের পোস্ট দেয়ার বিষয় নিয়ে স্থানীয় লোকজনের মাঝে আলোচনা চলছে।

সেই মিছিলের উদ্যোগের সাথে ছাত্রলীগের কারও কারও জড়িত থাকার অভিযোগও উঠেছে।

তবে এমন অভিযোগ মানতে রাজি নন এলাকার সংসদ সদস্য অবসরপ্রাপ্ত মেজর রফিকুল ইসলাম।

হাজীগঞ্জ আওয়ামী লীগের একজন নেতা আহসান হাবীব বলেছেন, বিক্ষোভ এবং সহিংসতার কৌশল দেখে সেটা পরিকল্পিত বলেই তাদের মনে হয়েছে।

“হামলাকারীরা ১৪/১৫ বছরের ছেলেদের দিয়ে মন্দিরে হামলা করিয়েছিল।

”তারা পুলিশকে একদিকে ব্যস্ত রেখে বিভিন্ন জায়গা দিয়ে হামলা করেছে। ফলে সরকারবিরোধী কোন একটি রাজনৈতিক দল পরিকল্পিতভাবে এটা করেছে,” তিনি বলেন।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ এবং ছাত্রলীগ মিলে হামলাকারীদের প্রতিহত করার চেষ্টা করেছিল।

বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে হতাহতের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে দু’টি মামলা করেছে।

এছাড়া বিক্ষোভ এবং সহিংসতার ঘটনার ব্যাপারে আরও ছয়টি মামলায় পুলিশ তদন্ত চালাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

মুরাদ জেলা আওয়ামী লীগ থেকেও অব্যাহতি: সেতুমন্ত্রী

পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার পর তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানকে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিয়য়ক সম্পাদকের পদ থেকেও...

মন্ত্রীর পদ হারালেন প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান

খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মুরাদ হাসানের বক্তব্য–সংবলিত একটি ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে খালেদা জিয়ার নাতনি জাইমা রহমান সম্পর্কে...

ছদ্মবেশী ভুয়া অ্যাকাউন্টের সাথে প্রেম করে টাকা খোয়াচ্ছেন না তো?

ঢাকার একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের একজন সেলেব্রেটি সংবাদপাঠিকার গল্প এটি। একদিন তার অফিসে এক ব্যক্তি এসে হাজির হয়ে দাবি করেন, ওই সংবাদপাঠিকা...

ভারতে রুশ প্রেসিডেন্টের সফর বাকি বিশ্বকে কী বার্তা দিচ্ছে?

ভারত আর রাশিয়ার মধ্যে সম্পর্ক সেই স্নায়ুযুদ্ধের আমল থেকে। সেই সম্পর্ক এখন আরও বেড়েছে। সব মিলিয়ে রুশ কোন প্রেসিডেন্টের ভারত সফর সবসময়েই...

Recent Comments