ঢাকা | |

শিশুদের মোবাইল আসক্তি কাটাতে যা করবেন

প্রযুক্তির এই যুগে শিশুরা মোবাইল ফোন হাতে দিয়ে কান্না থামান অনেক বাবা-মা। এমনকি তাদের খাওয়ানোর সময় অনেক অভিভাবকরাই
  • আপলোড সময় : ১১ জানুয়ারী ২০২৪, দুপুর ৩:৪৩ সময়
  • আপডেট সময় : ১১ জানুয়ারী ২০২৪, দুপুর ৩:৪৩ সময়
শিশুদের মোবাইল আসক্তি কাটাতে যা করবেন ছবি : সংগৃহীত
প্রযুক্তির এই যুগে শিশুরা মোবাইল ফোন হাতে দিয়ে কান্না থামান অনেক বাবা-মা। এমনকি তাদের খাওয়ানোর সময় অনেক অভিভাবকরাই শিশুকে মোবাইলে ব্যস্ত রাখেন। শিশুরা কার্টুন, ছড়া, ইউটিউবে বেবি শার্কের মতো ভিডিও বার বার দেখতেই থাকে। শিশুদের ভুলিয়ে রাখতে বা সামলাতে তাদের হাতে মোবাইল ফোন, ট্যাব তুলে দিয়ে নিশ্চিন্ত হলে ভুল করবেন। কারণ এসব ডিভাইস দ্রুতই শিশুকে আসক্ত করে ফেলতে পারে। একটা সময় এসব ডিভাইস হাতে না দিলেই তারা কান্না করে, জেদ করে।

ভাবছেন কড়া শাসন করলেই সব ঠিক হয়ে যাবে? কিন্তু বকাঝকা করলে অনেক সময় উল্টো ফল হয়। তাই কিছু কৌশল রয়েছে, যা চেষ্টা করে আপনি বাচ্চাদের ডিভাইস থেকে অনেকাংশে দূরে রাখতে পারবেন।

শিশুকে অন্য কিছুতে ব্যস্ত রাখুন
আপনি তাদের শারীরিক কাজ, ছবি আঁকা, খেলায় ব্যস্ত রাখুন। এর জন্য বাজার থেকে এমন খেলনা আনতে পারেন যাতে শরীরে পরিশ্রম হয়। শিশুর পছন্দ বুঝে খেলার সামগ্রী কিনুন। তাকে সাইকেল চালানো শেখান, ক্যারম আনুন, দাবা খেলা শেখান, লুডো খেলতে পারেন। এই ধরনের সৃজনশীল কাজ করার প্রতি শিশুর আগ্রহও বাড়তে থাকবে এবং সে এসব কাজে বেশি সময় ব্যয় করবে।

শিশুর সঙ্গে গুরুত্ব দিয়ে কথা বলুন
বাড়ন্ত শিশুরা নিজেদের প্রতি কেউ গুরুত্ব দিক তা চায়। এজন্য শিশুকে ব্যস্ততা কিংবা কোনো অজুহাতেই এড়িয়ে না গিয়ে সময় দিন, তাদের সঙ্গে গুরুত্ব দিয়ে কথা বলুন। আপনি ওদের গুরুত্ব দিলে তারা সেটা বুঝতে পারে। সন্তানের কাছ থেকে ফোন নেওয়া বা টিভির সুইচ বন্ধ করার ক্ষেত্রে নরম হন। কোনও গুরুত্বপূর্ণ কথা বলে তাকে আদর করুন। ভালভাবে ডেকে স্কুল বা অন্য কোনও শিশুর ভাললাগার বিষয় নিয়ে কথা বলে ভুলিয়ে দিন। শিশুকে ভালবেসে বোঝান এবং অতিরিক্ত ডিভাইসে যে তারও ক্ষতি হচ্ছে তাও বুঝিয়ে বলুন।

শিশুদের কথা ভেবে নিজেরাও ডিভাইস আসক্তি কমান
শিশুরা দেখে শেখে। বাবা-মাকে সারাক্ষণ মোবাইল-টিভি-ট্যাবের স্ক্রিনে তাকিয়ে থাকতে দেখলে স্বাভাবিকভাবে তারাও অনুকরণ করবে। তাই বাচ্চাদের সামনে নিজেরা ভাল উদাহরণ সৃষ্টি করুন। নিজেরা মোবাইল-টিভি কম দেখুন। নিজেরা বই পড়ুন শিশুদের সঙ্গে পশু-পাখি, প্রকৃতি, ঐতিহ্য, রূপকথার গল্প করুন।

শিশুকে ঘরের বাইরে বেড়াতে নিয়ে যান
সারাদিন বাসায় আটকে থেকে শিশুরা আসলে ভেতরে ভেতরে হাঁপিয়ে ওঠে। এজন্য তাদের ঘরের বাইরের বিনোদনের ব্যবস্থা করুন। তাদের সঙ্গে নিয়ে বেড়াতে বের হন, পার্কে যান, মাঠে যান। মেলা-উৎসবে তাদের সঙ্গে নিয়ে যান। এছাড়া নিয়মিত জাদুঘর, চিড়িয়াখানার মতো শিশুদের কৌতুহল উদ্দীপক স্থানগুলোতে নিয়ে যান।

শিশুদের ডিভাইস ব্যবহারের নিয়ম তৈরি করুন
বাচ্চাদের পক্ষে ফোন, ট্যাবের মতো গ্যাজেট সম্পূর্ণরূপে ছেড়ে দেওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু আপনি চান না যে তারা সবসময় এসবে মুখ ডুবিয়ে থাকুক। প্রয়োজন মধ্যমপন্থা অনুসরণ। আপনার সন্তানকে গ্যাজেট ব্যবহারের শর্ত দিন, নিয়ম তৈরি করুন। এর জন্য একটি সময় নির্ধারণ করুন। তাকে বলুন কোন সময় থেকে কোন সময় সে ডিভাইস ব্যবহারের সুযোগ পাবে, কতক্ষণ সে ভিডিও দেখতে পারবে। এখন অধিকাংশ স্মার্টফোন অ্যাপে শিশুদের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করতে অভিভাবকদের জন্য কন্ট্রোলের অপশন থাকে, আপনি নিজের মতো শিশুর ডিভাইসে সময় নির্ধারণ করে দিতে পারেন।
  • বিষয়:

নিউজটি আপডেট করেছেন: বাংলা নিউজ নেটওয়ার্ক ডেস্ক।

কমেন্ট বক্স