ঢাকা | |
সংবাদ শিরোনাম :
লাখো মুসল্লির লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখরিত তাবুর শহর মিনা পশুরহাটে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা রোধে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে: কমান্ডার আরাফাত আনার হত্যা মামলায় স্বেচ্ছায় জবানবন্দি দেন বাবু ১৫২ কোটি টাকা আত্মসাৎ: মূসকের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জি-৭ মাত্র ৩% সামরিক ব্যয় কমালে ক্ষুধামুক্ত হবে সারা বিশ্ব ১০০ কোটি ব্যয়ে বুয়েটে হবে ন্যানো ল্যাব: পলক প্রবৃদ্ধি টেকসই করতে পরিবেশ রক্ষায় গুরুত্ব দিতে হবে: পরিবেশমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর থেকে শক্তি সঞ্চয় করে এসেছেন : রিজভী সুনামগঞ্জে এসএস পরিবহন থেকে ভারতীয় পণ্য জব্দ বেনজীরের বিরুদ্ধে শিগগিরই মামলা : দুদক আইনজীবী

অযোধ্যায় বিজেপি হারতেই বিপাকে সোনু নিগম

নির্বাচনের ফল প্রকাশের দিন সকাল থেকেই উত্তরপ্রদেশের ফৈজাবাদ কেন্দ্রে নজর ছিল সকলের। কারণ লোকসভা কেন্দ্রের অযোধ্যায় রয়েছে রামমন্দির।
  • আপলোড সময় : ৬ জুন ২০২৪, সকাল ৮:৪৫ সময়
  • আপডেট সময় : ৬ জুন ২০২৪, সকাল ৮:৪৫ সময়
অযোধ্যায় বিজেপি হারতেই বিপাকে সোনু নিগম ছবি : সংগৃহীত
নির্বাচনের ফল প্রকাশের দিন সকাল থেকেই উত্তরপ্রদেশের ফৈজাবাদ কেন্দ্রে নজর ছিল সকলের। কারণ লোকসভা কেন্দ্রের অযোধ্যায় রয়েছে রামমন্দির। যে মন্দির নির্মাণ ভারতের ইতিহাসের অন্যতম ঐতিহাসিক ঘটনার একটি। 

বিজেপির নির্বাচনী প্রচারে বার বার উঠে এসেছে এই রামমন্দির প্রসঙ্গ। সেখানেই ভরাডুবি হয়েছে দলটির। তাদের প্রার্থী লালু সিং এই কেন্দ্রে হেরে গেছেন ৫৪,৫০০ ভোটের ব্যবধানে। যেখানে জয়ী হয়েছেন সমাজবাদী পার্টির অবধেশ কুমার। 

অযোধ্যায় বিজেপির এমন ভরাডুবির পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনায় রয়েছে ফৈজাবাদ। যেই আলোচনায় বিপাকে পড়েছেন সংগীতশিল্পী সোনু নিগাম। কী এমন ঘটলো এই গায়কের সঙ্গে?

রামনগরীতে বিজেপির হারের পর এক্স (আগের টুইটার) হ্যান্ডেলে ‘সোনু নিগাম’ নামের অ্যাকাউন্ট থেকে একটি পোস্টে লেখা হয়, ‘যে সরকার অযোধ্যাকে পুরো নতুনের মতো করে দিল, বিমানবন্দর থেকে রেলস্টেশন সব জায়গাতে উন্নয়নের জোয়ার আনল, প্রায় ৫০০ বছর পর রামমন্দির প্রতিষ্ঠা করল, সেই অযোধ্যায় না কি জিততে পারল না বিজেপি।’

মুহূতের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় সেই পোস্ট। সোনু নিগাম নামটা দেখে অনেকেই ভুল করে বসেন। তারা ভেবে নেন, এটা সংগীতশিল্পী সোনু নিগামের পোস্ট। 

তবে যিনি পোস্ট দিয়েছেন তিনি গায়ক সোনু নিগাম নয়। ইনি সোনু নিগম সিংহ। উত্তরপ্রদেশের নাগরিক। তার নামের শেষের ‘সিং’ অধিকাংশেরই নজরে পড়েনি। যে কারণেই বিপাকে পড়েন সংগীতশিল্পী। নানা কটুকথা ও কটাক্ষ শুনতে হয় তাকে। কারণ অযোধ্যায় রামমন্দিন প্রতিষ্ঠার সময় এই গায়কও উপস্থিত ছিলেন। 

নেটিজেদনের এমন কটাক্ষের কারণেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে বছরখানেক আগেই নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন এই শিল্পী। এই ঘটনাতেও হতবাক হয়েছেন তিনি। এত লোক তাকে নিয়ে কথা বলছে, অথচ কেউ পুরো নামটাই লক্ষ্য করল না!
  • বিষয়:

নিউজটি আপডেট করেছেন: বাংলা নিউজ নেটওয়ার্ক ডেস্ক।

বাংলা নিউজ নেটওয়ার্ক ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
কমেন্ট বক্স
সর্বশেষ সংবাদ
নামাজ আদায় করার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে জাতীয় ঈদগাহ মাঠ

নামাজ আদায় করার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে জাতীয় ঈদগাহ মাঠ